Main Menu

ফুলবাড়ীতে কিডনী রোগে আক্রান্ত মেধাবী ছাত্র জুলফিকার বাঁচতে চায়—

শেখ সাবীর আলী, ফুলবাড়ী(দিনাজপুর)

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার কাজিহাল ইউনিয়নের আমড়া গ্রামের শাহেদার রহমানের ছেলে জুলফিকার আলী (১৪) কিডনী রোগে আক্রান্ত হয়ে ভারতের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাজ্ঞা লড়ছে। গার্মেন্টস শ্রমিক শাহেদার রহমান অর্থের অভাবে তার পুত্রের চিকিৎসা করতে পারছেন না। জুলফিকার আলী বাড়ীর পাশের মুরারীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীতে লেখাপড়া করে। তার পিতা ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে শ্রমিকের কাজ করেন। জুলফিকার বর্তমানে মরণ ব্যাধি কিডনী রোগে অক্রান্ত হয়েছে। তার বাবা শাহেদার রহমান জানান, তাকে বাংলাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে দীর্ঘদিন চিকিৎসা করানো হয়। সবশেষ ২০১৮ সালের জুন মাসে কয়েকজন কিডনী বিশেষজ্ঞ বলেছেন তার দু’টো কিডনীই নষ্ট হয়ে গেছে, কিডনী ট্রান্সফার করতে হবে।

ছেলেকে বাঁচিয়ে রাখতে জুলফিকরের দরিদ্র পিতা শাহেদার রহমান তার নিজের শেষ সম্বল বাড়ীর ভিটা-মাটিটুকু বিক্রি করে চিকিৎসা করেছেন। চিকিৎসকেরা বলেছেন জুলফিকারের একটি কিডনি প্রতিস্থাপন করলে তাকে বাঁচানো সম্ভব হবে। ছেলেকে বাঁচিয়ে রাখতে নিজের কিডনি দিতে প্রস্তুত জুলফিকারের মা নুরবানু বেগম। কিন্তু সেই কিডনি প্রতিস্থাপন করতে এখন অনেক টাকার প্রয়োজন। সেই টাকা কিভাবে যোগাড় করবে তা নিয়ে এখন জুলফিকারের দরিদ্র পিতা শাহেদার রহমান দুশ্চিন্তা পড়েছেন। টাকা যোগাড় না করতে পারলে চিরতরে হারাতে হবে তাদের একমাত্র বুকের ধন জুলফিকারকে। কারণ কিডনি প্রতিস্থাপন করতে ৮-১০ লাখ টাকার প্রয়োজন।
কিন্তু তার গরীব পিতার পক্ষে ৮-১০ লাখ টাকা ব্যয় করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তাই তার মেধাবী পুত্রের জীবন বাঁচাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের সর্বস্তরের মানুষের কাছে সাহায্যের জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছেন। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা বিকাশ নং-০১৭৯৮৫৮৯৪৪৪, ব্যাংক হিসাব নং-০২০০০১১৮৫২৩১৭, অগ্রনী ব্যাংক লিঃ, মাদিলাহাট শাখা, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর।

(Visited 1 times, 1 visits today)





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

32 − = 24

Skip to toolbar